প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের উদ্যোগকে ’প্রতারণা’ বলছেন শরণার্থী শিবিরের রোহিঙ্গা নেতারা

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরুর দ্বিতীয় চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার কারন ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস নামের সংগঠনের চেয়ারম্যান মুহিব উল্লাহ বলেন;

মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের জায়গা এখনও নিরাপদ নয়। তাদের নিয়ে যদি ক্যাম্পে রাখা হয় তাহলে বাংলাদেশের ক্যাম্পই তাদের জন্য ভালো।

আপত্তির কারণ তুলে ধরে মুহিব উল্লাহ শনিবার বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে মুখ রক্ষার জন্য আমাদের ফেরানোর কথা বলছে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ। কিন্তু তারা ফেরানোর কোনো প্রস্তুতি নেয়নি। রোহিঙ্গাদের জায়গা এখন নিরাপদ নয়।

”যদি বাংলাদেশের ক্যাম্প থেকে মিয়ানমারের ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়, তাহলে এখানকার ক্যাম্পই আমাদের জন্য ভালো। মিথ্যা অভিযোগের বেসাতি করছে মিয়ানমার, যদিও রোহিঙ্গাদের ফেরানোর কোনো ইচ্ছা তাদের নেই।”

নিজ দেশের সরকারের ‘প্রতারণার’ উদাহরণ দিয়ে মুহিব উল্লাহ বলেন, “দেখা গেছে, একটি পরিবারে ১০ জন সদস্যের পাঁচজন আছে তালিকায়। তাহলে পরিবারের পাঁচ সদস্য কি অন্যদের রেখে যাবে?”

”আর নাগরিকত্ব নিয়ে তারা কোনো রা করছে না। অথচ যে প্রক্রিয়ায় নাগরিকত্ব রদ করা হয়েছে, সেই একই প্রক্রিয়ায় রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব ফেরানোর ক্ষণিকের ব্যাপার মাত্র।”

প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার দ্বিতীয় বার মিয়ানমারের তালিকা ধরে তিন হাজার ৫৪০ রোহিঙ্গাকে প্রত্যাবাসনের প্রক্রিয়া শুরু করে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা- ইউএনএইচসিআর এবং বাংলাদেশের শরণার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনারের কার্যালয়। কিন্তু নাগরিকত্ব, নিরাপত্তা ও ভিটেমাটি ফেরত দেওয়াসহ চারটি শর্তে পুরন না হওয়া দ্বিতীয়বারের মতো স্বদেশে ফিরতে অস্বীকৃতি জানায় রোহিঙ্গা শরণার্থীরা।

সুত্রঃ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর

নকশী টিভি'র সকল অনুষ্ঠান সরাসরি দেখতে ক্লিক করুনঃ সরাসরি সম্প্রচার

ইউটিউবে নকশী টিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন নকশী টিভির ইউটিউব চ্যানেল

সাম্প্রতিক খবর