বেলজিয়ামকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে ফ্রান্স

এর আগে একবারই বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠেছিল বেলজিয়াম। সেটা ১৯৮৬ সালে। সেবার আর্জেন্টিনার কাছে হেরে ফাইনালের স্বপ্ন অধরা রয়ে যায় বেলজিয়ামের। এরপর আর সেমিফাইনালে ওঠার সুযোগ হয়নি। এবার ২০১৮–তে এসে ইউরোপের দলটি সেমিতে উঠেছে। বিশ্বকাপজুড়ে বেলজিয়াম দলের সবাই যেভাবে খেলেছেন, ফাইনালে ওঠার অসাধারণ সুযোগ ছিল তাঁদের সামনে। কে জানে ইংল্যান্ড কিংবা ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে হয়তো শিরোপাটাও জিতে নিতে পারত বেলজিয়াম! এসবের কিছুই সম্ভব হয়নি ফ্রান্সের স্যামুয়েল উমতিতি আর দেশমের কারণে! বেলজিয়াম-ফ্রান্স সেমিফাইনালে দেশম ঠান্ডা মাথায় পরিকল্পনা সাজিয়েছেন। খেলোয়াড়দের দিয়ে দাবার ঘুটির মতো চাল দিয়েছেন। সেটা কাজেও এসেছে উমতিতির হাত ধরে। এই বার্সা ডিফেন্ডারের একমাত্র গোলেই খুন হয়েছে বেলজিয়াম। বেলজিয়ামকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে ফ্রান্স। হার কী জিনিস, সেটা ভুলতেই বসেছিল বেলজিয়াম। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে স্পেনের সঙ্গে এক প্রীতি ম্যাচে হেরেছিল। এরপর আর পরাজয়ের স্বাদ নিতে হয়নি বেলজিয়ানদের। এমন এক ম্যাচে এসে হেরে গেল, যে ম্যাচে জয়টা দরকার ছিল খুব করে।

শুরু থেকে প্রথমার্ধের ২৫ মিনিট পর্যন্ত আক্রমণের পসরা সাজিয়ে বসেছিল বেলজিয়াম। একের পর এক আক্রমণে ফ্রান্সের রক্ষণকে মনে হচ্ছিল পথ হারানো নাবিক। রক্ষণ সামলাতে ব্যস্ত দেশমের শিষ্যরা যেন আক্রমণে ওঠার সময়ই (পড়ুন সুযোগ) পাচ্ছিলেন না। এই সময়ের মধ্যে হাতে গোনা দু–একবার বেলজিয়ামের ডিফেন্স ভাঙার ব্যর্থ চেষ্টা চালিয়েছে ফ্রান্স। ১৮ মিনিটে এসে গোলমুখে প্রথম শট নেয় ফ্রান্সের ব্লাইস মাতুইদি। ফ্রান্স খেলায় ফিরে আসে রয়েসয়ে। দেশমের পরিকল্পনাটাই ছিল এমন। আক্রমণ ঠিক রেখে পাল্টা আক্রমণে প্রতিপক্ষকে খুন করা। ৪-২-৩-১ ফরমেশনটা সেটাই তো বলছে। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসেন ফ্রান্সের খেলোয়াড়েরা।

নকশী টিভি'র সকল অনুষ্ঠান সরাসরি দেখতে ক্লিক করুনঃ সরাসরি সম্প্রচার

 
ইউটিউবে নকশী টিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন নকশী টিভির ইউটিউব চ্যানেল

সর্বশেষ আপডেট সংবাদ

ফাইনাল ফিটিং | কমেডি নাটক

Free Hit Counter