ব্যর্থ হলো ভারতের চন্দ্র অভিযান, প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে ধরে কেঁদলেন ইসরো-র চেয়ারম্যান

প্রথম দেশ হিসেবে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে চন্দ্রযান পাঠানোর ইতিহাস গড়া হলো না ভারতের। স্থানীয় সময় রাত ১ টা ৫৫ মিনিটে অবতরণ করার কথা ল্যান্ডার বিক্রমের। ঐতিহাসিক মুহুর্তের সাক্ষী হতে মধ্যরাতে মহাকাশ গবেষণা সংস্থার নিয়ন্ত্রণকক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। টেলিভিশন পর্দার সরাসরি সম্প্রচারে নজর ছিলো কোটি ভারতীয়ের।

তবে, অবতরণের কয়েক সেকেন্ড আগে ঘটে বিপত্তি। পরে আইএসআরও জানায়, চাঁদের পৃষ্ঠ থেকে মাত্র দুই দশমিক ১ কিলোমিটার পথ বাকি থাকতে গ্রাউন্ড স্টেশনের সাথে ল্যান্ডার ‘বিক্রম’-এর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। শেষমুহুর্তে ব্যর্থ হলেও এ অভিযানকে বড় সাফল্য বলে অভিহিত করেছেন নরেন্দ্র মোদি।

উদ্বিগ্ন ১৩৩ কোটি ভারতবাসী এই খবর জেনেছিল শুক্রবার শেষ রাতেই। ইসরোর বিজ্ঞানীদের সঙ্গে প্রায় সারা রাত জেগে গোটা ঘটনা দেখার পরে, শনিবার সকালে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিতে গিয়ে গলা ধরে এল প্রধানমন্ত্রীর। ইসরোর চেয়ারম্যান কে শিবনও শেষমেশ নিজেকে ধরে রাখতে পারলেন না। প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে ধরে কেঁদে ফেললেন তিনি।

ইসরো থেকেই শনিবার সকালে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী। ইসরোকে গোটা কর্মকাণ্ডের জন্যে কুর্নিশ জানান তিনি। বিজ্ঞানীদের উজ্জীবিত করতে তিনি বলেন, ‘‘লক্ষ্যে না পৌঁছনো পর্যন্ত আমরা দাঁড়াব না। আমরা আত্মবিশ্বাসী, সফল আমরা হবই। আমাদের কেউ রুখতে পারবেন না।’’

শুক্রবার মধ্যরাত ছিল ইসরোর জন্যে অগ্নিপরীক্ষা। সব ঠিক থাকলে রাত ১টা ৫১ মিনিটে চাঁদের মাটিতে পা রেখে ইতিহাস গড়তে পারত ভারত। কিন্তু বিজ্ঞানীদের চূড়ান্ত উৎকণ্ঠার মধ্যে ফেলে চাঁদের মাটি থেকে মাত্র ২.১ কিলোমিটার দূরে অরবিটারের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয় বিক্রমের। ফলে গ্রাউন্ড স্টেশনও আর কোনও সঙ্কেত পায়নি। এই গোটা ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

নকশী টিভি'র সকল অনুষ্ঠান সরাসরি দেখতে ক্লিক করুনঃ সরাসরি সম্প্রচার

ইউটিউবে নকশী টিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন নকশী টিভির ইউটিউব চ্যানেল