সিনেমা পরিচালক থেকে হোটেল বয়, প্রতিদিন রোজগার ২৫০ টাকা

এক বুক আশা আর দু’চোখ ভরা স্বপ্ন নিয়ে এসেছিলেন সিনেমা জগতে। সাতই মার্চের ভাষণ থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে, “গন্তব্য” নামে একটি ছবি নির্মাণ করেছেন, তরুণ পরিচালক অরণ্য পলাশ। তারকাবহুল ছবিটির সব কাজ শেষ হলেও, নানা ঘটনায় আজ নিঃস্ব তিনি।

সারা দেশের সিনেমা হল গুলোতে চলবে তার ছিনেমা, প্রশংসায় ভাসাবে ছবির পরিচালক। এক বুক স্বপ্ন নিয়ে পরিচালক অরণ্য পলাশ তৈরি করেছিল “গন্তব্য” সিনেমা তৈরি হলেও পরিচালক এখনও যেতে পারেনি তার গন্তব্যে। স্বপ্ন গুলো এখন দুঃস্বপ্ন হয়ে ফিরে এসেছে তার জিবনে।

সিনেমার নেশায় সব বিক্রি করে আজ নিঃস্ব। নিজের বাড়ি, স্ত্রীর গয়না বিক্রি করেছেন। তাতেও ছবির অর্থের জোগান না হওয়ায় সুদের ওপর ঋণ নিয়েছেন। ভেবেছিলেন সিনেমা মুক্তি পেলে হয়তো দিন বদলাবে তার।

সিনেমাটি তিনি কোনোরকমে শেষ করতে পারলেও সেটি মুক্তি দিতে পারছেন না এই তরুন পরিচালক। কোনো আয় না থাকলেও প্রতি মাসে নিয়মিত ভাবেই যোগ হয় ঋণের সুদ।

ছবির সবশেষ অবস্থা জানতে চাইলে গণমাধ্যমেকে নিজের জীবনের করুণ দুর্দশার কথা জানিয়েছেন তিনি। পলাশ বলেন,
‘পরিচালনার পাশাপাশি ছবিটির প্রযোজকও আমি। আমার সর্বস্ব শেষ করে ‘গন্তব্য’ সিনেমাটি নির্মাণ করেছি। বিভিন্ন জায়গা থেকে সুদে ঋণ নিয়ে, জমি বিক্রি, স্ত্রীর গয়না বিক্রি করে সিনেমাটির কাজ শেষ করেছি। ছবির সেন্সরও পেয়েছি অনেক দিন হয়। কিন্তু ছবিটি মুক্তি দেওয়ার জন্য টাকা আমার কাছে নেই।

কিন্তু অভাবের আক্রমণে বিধ্বস্ত আমি। সবাই আমাকে ছেড়ে গেছে। বাধ্য হয়ে এখন মিরপুরে একটি রেস্তোরাঁয় হোটেল বয়ের কাজ করছি।’

পলাশ বলেন, ‘সিনেমার জন্য তো অনেক করেছি আমি। এই সিনেমা আমার জন্য কিছুই করলো না। অনেক জায়গায় চাকরি খুঁজেছি। কিছুই হয়নি। পেট চালানোর জন্য তাই দৈনিক ২৫০ টাকা হাজিরা ও তিন বেলা খাওয়ার চুক্তিতে রেস্তোঁরায় কাজ করছি।’

তিনি জানান, ইমপ্রেস টেলিফিল্মের কাছে ছবিটি বিক্রির আলোচনা হয়েছিল। কিন্তু সেখানে ইমপ্রেস তার সঙ্গে অপেশাদার আচরণ করেছে। একটি সিনেমার জন্য তারা প্রথমে ১০ লাখ টাকা দিতে চেয়েছে । পরে তারা ৭ লাখ টাকা দেবে বলে জানান। এখন তারা দিতে চাইছেন মাত্র ৪ লাখ টাকা। এর মধ্যে ৩ লাখ ছবির কপিরাইট এবং বাকি এক লাখ টাকা অনলাইন স্বত্ব। এত কম মূল্যে বিক্রি করার চেয়ে বিক্রি না করাই ভালো বলে মনে করি।’

‘গন্তব্য’ নামের সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন, চিত্রনায়ক ফেরদৌস, নায়িকা আইরিন আরও আছেন এ ছবিতে জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, কাজী রাজু, আফফান মিতুলসহ অনেক কলাকুশলী। ছবিটির নির্মাণকজি শেষ হলেও এখন পর্যন্ত পরিচালক ছবিটি মুক্তি দিতে পারেননি।

নকশী টিভি'র সকল অনুষ্ঠান সরাসরি দেখতে ক্লিক করুনঃ সরাসরি সম্প্রচার

ইউটিউবে নকশী টিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন নকশী টিভির ইউটিউব চ্যানেল

মন্তব্য যোগ করুন

Your email address will not be published.

সাম্প্রতিক খবর