ওসি সহ চার পুলিশ দ্বারা তরুণী ধর্ষিত

পুলিশের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ করলেন মাদক মামলার আসামি এক নারী। বিচারিক আদালতে হাজির করার পর তিনি এই অভিযোগ করেন। অভিযুক্তরা হলেন খুলনার জিআরপি থানার ওসি (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) ওসমান গনি পাঠান, উপ-পরিদর্শক (এসআই) ও তিন কনস্টেবল।

অভিযোগের ভিত্তিতে ওই নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। পরে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার হয়।

ওই নারীর দুলাভাই জানান, গত শুক্রবার তার শ্যালিকা (২১) যশোর থেকে ট্রেনে খুলনায় আসলে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে রেলস্টেশনে কর্তব্যরত জিআরপি পুলিশের সদস্যরা তাকে সন্দেহজনকভাবে ধরে নিয়ে যায়। পরে গভীর রাতে জিআরপি পুলিশের ওসি ওসমান গনি পাঠান তাকে প্রথমে ধর্ষণ করেন। পরের আরও চার পুলিশ কর্মকর্তা তাকে ধর্ষণ করেন।

পরদিন শনিবার ওই নারীকে পাঁচ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার দেখিয়ে মাদক মামলায় আদালতে তোলা হয়। কিন্তু আদালতে বিচারকের সামনে ওই নারী পালাক্রমে গণধর্ষণের অভিযোগ করেন। এরপর আদালতের বিচারক জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ওই নারীর ডাক্তারি পরীক্ষার নির্দেশ দেন।

ওসি ওসমান গনি তার বিরুদ্ধে করা অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে বলেন, মাদক মামলা থেকে রেহাই পেতে ওই নারী এ ধরনের অভিযোগ তুলছেন।

নকশী টিভি'র সকল অনুষ্ঠান সরাসরি দেখতে ক্লিক করুনঃ সরাসরি সম্প্রচার

ইউটিউবে নকশী টিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন নকশী টিভির ইউটিউব চ্যানেল

মন্তব্য যোগ করুন

Your email address will not be published.

সাম্প্রতিক খবর